ইসলামিকদোয়া

বৃহস্পতিবার রাতে দোয়া টি পড়লে সাথে সাথেই ফল পাবেন!!

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। আশা করি আল্লাহ তায়ালার অশেষ মেহেরবানীতে আপনারা সবাই ভাল আছেন। দোয়া শব্দের অর্থ হলো,ডাকা, চাওয়া, ও কাউকে আহবান করা।

আমরা আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে দোয়া করি এর অর্থ হলো আল্লাহ আজ্জাওয়াজাল  ওনার কিছু চাই বা কোনো বিপদ মুসিবত থেকে উদ্ধারের জন্য আল্লাহর নিকট আকুতি করি আরজি করি। দোয়া শুধু দোয়া নয় বরং একটি  ইবাদত। হাদীসেও এসেছে দোয়া একটি ইবাদত। অন্য একটি হাদীসে এসেছে, রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন দোয়া হচ্ছে ইবাদতের মগজ।

সুখে-দুখে সর্বাবস্থায় আল্লাহর নিকট চাই এবং দোয়া করব। দোয়া কবুল হওয়ার কিছু সময় রয়েছে যে সময়ে গুলোতে দোয়া বেশি কবুল হয়। কিন্তু তা সত্বেও সর্বাবস্থায় আল্লাহ রাব্বুল আলামীন দোয়া কবুল করেন। আল্লাহ সবার শুনেন,সকল সময় শুনেন সর্বাবস্থায় শুনেন । রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছে যে সবচেয়ে বেশি কোন সময় দোয়া কবুল করা হয়। উত্তরে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু সাল্লাম বলেছেন নামাজের পরবর্তী দোয়া এবং শেষ রাত্রির দোয়া সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ দোয়া।আমরা নামাজের পরবর্তীতে এবং  শেষ রাতে বেশি বেশি করে দোয়া করব।

এছাড়াও যখন সুযোগ পাই তখনই দোয়া করব। বৃহস্পতিবার রাত সম্পর্কে আপনাদের কিছু বলতে চাই, বৃহস্পতিবার রাতে দোয়া করলে দোয়া কবুল হয়। এমনিতেই হাদীস শরীফে এসেছে মধ্যরাতে যখন ঘুমের সব নিস্তব্ধ হয়ে যায় পৃথিবীতে সকল শব্দ কনিকা গুলো চুপ হয়ে যায়। সেই মুহুর্তে আল্লাহ শেষ আসমানে নেমে এসে উদাত্ত আহ্বান করে,হে আমার বান্দারা কার কি চাও আমি তোমাদের দোয়া কবুল করব। এই রাত গুলোর মধ্যে বৃহস্পতিবার রাত হচ্ছে শ্রেষ্ঠ রাত্রি । কেননা বৃহস্পতিবার রাত্রি হচ্ছে জুমআ’র রাত্রি।দুইটি ঈদের রাত্রি সর্বশ্রেষ্ঠ হওয়ার পরে  জুমার রাত্রি সর্বশ্রেষ্ঠ। কারণ বৃহস্পতিবার রাতের মধ্যে আল্লাহ আকাশের দরজা খুলে দেন মানুষের আমলগুলো পৌঁছানোর জন্য। এবার আমি আপনাদের আহবান করব আমরা প্রত্যেকটি ভাই বৃহস্পতিবার রাতে দুহাত তুলে দোয়া করব আল্লাহর কাছে আমাদের চাওয়া পাওয়া সব কিছু উপস্থাপন করবেন।নিঃসন্দেহে তিনি সবার ডাক শুনেন সকল কথা জানেন।

অনেকেই বলতে পারেন আমি দোয়া করি সাথে সাথে কেন কবুল হয় না, আমি তাৎক্ষণিক কেন পেয়ে যাই না। আল্লাহ রাব্বুল আলামীন আমাদের প্রত্যেকটি ডাকশুনে প্রত্যেকটি দোয়া শুনেন এবং তা হয়তো সাথে সাথে কবুল করেন নয় তোবা কিছুদিন পর কবুল করেন অথবা তার থেকে শ্রেষ্ঠ কিছু আপনার জন্য নির্দিষ্ট করেন। কিন্তু এমন হয় না যে আপনি দোয়া করলে দোয়া কবুল হলো না আল্লাহ অবশ্যই আপনার জন্য আপনার থেকেও আপনার কল্যাণ বেশি বুঝেন। কেননা তিনি আপনাকে সৃষ্টি করেছেন আপনার মধ্যে যা উপাত্ত দত্ত দেওয়া হয়েছে তা আপনি যতটা জানেন তার থেকে বেশি জানেন সেই মাবুদ যিনি আপনাকে সৃষ্টি করেছেন । তাই কখনো তাৎক্ষণিক দোয়া কবুল না হলে হতাশ হবেন না।  দোয়া করে যান কেননা দোয়াটি একভাবে যেমন দোয়া অন্যভাবে সেটি ইবাদত।

আল্লাহ রব্বুল আলামীন রাসূলপাক সাল্লাল্লাহু আলাইহিস সাল্লাম এর দেখানো পদ্ধতিতে বেশি বেশি তার নিকট প্রার্থনা করার তৌফিক দান করুক। সর্বাবস্থায় সকল বিষয়ে সকল পরিস্থিতিতে আমরা যেন রাব্বুল আলামিনের দরবারে হাত পাতি। আমরা যেন আমাদের সকল চাওয়া পাওয়া তার নিকট সমর্পণ করি। হে আল্লাহ আপনি আমাদের সকলের ডাক শুনুন আমিন।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
Close